ফাইলের আকার: 3.13MB

ইদ্রিস আবকার সম্পর্কে

দেশ: সৌদি আরব

শেখ ইদ্রিছ মুহাম্মদ আবকর ১৯ 197৫ সালে জেদ্দা শহরে এই বিশ্বে পা রাখলেন। তিনি ক্বারী, যার কোনও পরিচয় প্রয়োজন নেই এবং তিনি একজন দুর্দান্ত, প্রতিভাবান কুরআন তিলাওয়াত করেছেন।

আট বছরের বাল্যকাল থেকেই তিনি মসজিদ-তাওহীদে কুরআন শিক্ষা লাভ করতে শুরু করেছিলেন এবং ১৩ বছর বয়সে তিনি ইতোমধ্যে মসজিদ উল ফাতিনি-তে হিফদুল কুরআন দলে যোগদান করেছিলেন। তিনি এই ক্ষেত্রের সেরা দ্বারা শিক্ষার ব্যবস্থা করেছিলেন যার মধ্যে ইউসুফ আল আহমাদী, আবদেলওয়াহাব আল আহমাদী, আওদা অ্যাডাহারী, আবদুল্লাহ আলকার্নি, হাদি সাইদ, এবং মোহাম্মদ রাফির মতো বড় নাম অন্তর্ভুক্ত ছিল।

ইদ্রিস মুহাম্মদ আবকর শেখ ইউসুফ আল আহমদী, শায়খ আবদুল ওহাব আল আহমাদী, শাইখ ওদাহ আল-জাহেরী, শায়খ আবদুল্লাহ আল-কার্নি এবং শাইখ হাদী সাইদ প্রমুখের সম্মানিত শেখদের যোগ্য ও পরিশ্রমী গাইডেন্সের ভিত্তিতে কুরআনে আয়ত্ত করেছিলেন।

শাইখ ইদ্রিস আবকারের উপাধি প্রধান প্রার্থনা হিসাবে তাঁর ব্যাপক সূক্ষ্মতার কারণে একটি দুর্দান্ত পছন্দ ছিল এবং তিনি এই কাজটি খুব স্বাচ্ছন্দ্য এবং আগ্রহের সাথে পরিচালনা করতে পেরেছিলেন। তিনি মসজিদে আল-ফাতেমা, মসজিদ ইবনে-তাইমিয়্যাহ, মসজিদ আল-কাহতানী, আসাদ ইবনে আল হাদিরের মসজিদ, মসজিদ ইবনে আরকাম, মসজিদ সেলিম আল আরবী ও মসজিদ বাগাবরে নামাজ আদায় করেছেন।

তিনি বিশ্বের অনেক দেশ যেমন জর্ডান, কাতার, কুয়েত, বাহরাইন, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং আফ্রিকা ও এশিয়ার বিভিন্ন দেশের বেশ কয়েকটি দেশে তারাবিহ নামাজের নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ পেয়েছেন।

তিনি ২৩ শে নভেম্বর, ২০১৩ শনিবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে শেখ জায়েদ গ্র্যান্ড মসজিদের অফিসিয়াল ইমাম হিসাবে নিযুক্ত হয়েছিলেন এবং আজ পর্যন্ত তিনি এই পদে অধিষ্ঠিত।

bn_BDBengali